আমাদের প্রিয় সন্তান


প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না

রহমান রহীম আল্লাহ্‌ তায়ালার নামে-

অনুবাদ ও সম্পাদনাঃ কুরআনের আলো ওয়েবসাইট

আমাদের প্রিয় সন্তান,

একদিন যখন তুমি আমাদেরকে দেখবে বৃদ্ধ, দূর্বল ও জীবনের ভারে পরিশ্রান্ত,
তখন আমাদেরকে একটু ধৈর্য্য নিয়ে বোঝার চেষ্টা করো।

যদি আমরা খাওয়ার সময় নোংরা হয়ে যাই,
যদি আমরা আমাদের নিজেদের পোষাকটাও ঠিকমত পরতে না পারি,
দয়া করে সেই সময়কার কথা মনে করে আমাদেরকে ফেলে দিও না, যখন আমরা তোমাকে খাওয়াতাম আর পোষাক পরাতাম।

যখন আমরা তোমার সাথে কথা বলতাম,
তোমাকে বোঝানোর জন্য আমরা একই কথা বার বার বলতাম।
তাই আমাদের কথায় কোন  বাধা দিও না।
আমাদের কথা শুনো।
যখন তুমি ছোট ছিলে,
তোমার ঘুম না আসা পর্যন্ত আমরা একই গল্প তোমাকে এক হাজার এক বার পড়ে শুনাতাম।

যখন আমরা গোসল করতে চাইব না,
তখন আমাদেরকে লজ্জিত বা কটুক্তি করবে না।
মনে করে দেখ তোমাকে গোসল করাতে তোমার হাজারো যুক্তি খন্ডন করতে হত।

যখন ভবিষ্যতে আধুনিক প্রযুক্তির যুগে আমাদের অজ্ঞতা দেখবে,
তখন আমাদের সেই আধুনিক দুনিয়ার পথ চলতে সাহায্য করো।
তোমাকে আমরা অনেক কিছু শিখিয়েছি,
হালাল খাবার খাওয়া, ঠিকভাবে পোষাক পরা,
নিজের অধিকারের জন্য লড়া।
তাই কখনো যদি আমরা কিছু ভুলে যাই,
অথবা কথার মাঝখানেই অন্যমনস্ক হয়ে পড়ি,
আমাদের মনে করার জন্য একটু সময় দিও,
আর যদি আমরা মনে করতে নাও পারি, তাহলে তার জন্য উদ্বিগ্ন হয়ো না।
কারণ তোমার সাথে কথা বলাটাই সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ণ নয়,
গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে তোমার সাথে থাকা আর আমদের কথা তোমাকে শোনানো।

যদি আমরা কখনো খেতে না চাই, তাহলে তখন আমাদের জোর করো না।
আমরা ভালো করেই জানি আমাদের কখন খেতে হবে বা হবে না।

যখন আমাদের ক্লান্ত পা আর পথ চলতে চাইবে না, লাঠি ছাড়া আর হাঁটতে পারবো না,
তখন তোমার হাতখানা দিও
ঠিক সেভাবে যেভাবে আমরা তোমাকে দিয়েছিলাম, যখন তুমি প্রথমবার হাটতে গিয়ে ক্লান্ত হয়েছিলে।

আর যদি কোনদিন আমরা তোমাকে বলি
যে আমরা আর বাঁচতে চাই না, আমরা মরতে চাই!
তখন তুমি রেগে যেও না।
একদিন তুমিও একথা বুঝবে।
বুঝতে চেষ্টা করো যে, আমাদের এ বয়সটা বাঁচার জন্য না টিকে থাকার জন্য।

একদিন তুমি বুঝবে যে, আমাদের বহু ভুল থাকা  সত্ত্বেও
আমরা সব সময় তোমার ভালোই চাইতাম,
আর আমরা তোমার জন্য একটা ভাল পথ তৈরির চেষ্টা করতাম ।

আমদের তোমার কাছাকাছি দেখে দুঃখিত, রাগান্বিত বা লজ্জিত হয়ো না
তার বদলে আমাদেরকে বোঝার ও সাহায্য করার চেষ্টা করো
ঠিক যেভাবে আমরা তোমার ক্ষেত্রে করেছি যখন তুমি ছোট ছিলে।

আমাদের চলতে সাহায্য করো
আমাদের জীবনের বাকি পথটুকু চলতে সাহায্য করো ভালোবাসা আর সম্মান দিয়ে।
আমরা তোমাকে তার বিনিময়ে দেব হাসি ও অপরিসীম ভালোবাসা
আমরা তোমাকে সবসময় আমাদের অন্তরে মধ্যমণি করে রেখেছি
আমরা সবসময় তোমার জন্য দুয়া করবো
আমরা তোমাকে অনেক ভালোবাসি!

আল্লাহ সুবহানাহু তা’আলা বলেন :

“তোমার প্রতিপালক এই আদেশ করেছেন যে, তিনি ছাড়া অন্য কারো ‘ইবাদাত করো না, আর পিতা-মাতার সঙ্গে সদ্ব্যব্যবহার করো। তাদের একজন বা তাদের উভয়ে যদি তোমার জীবদ্দশায় বার্ধক্যে উপনীত হয়, তবে তাদের প্রতি বিরক্তি বা অবজ্ঞাসূচক ভাবে উহ! শব্দটুকুও করো না (বিরক্তিসূচক কোন কথা বলো না), আর তাদেরকে ধমক দিও না। তাদের সাথে সম্মানজনক কথা বল। তাদের জন্য সদয়ভাবে নম্রতার বাহু প্রসারিত করে দাও আর বল, ‘হে আমাদের প্রতিপালক! তাদের প্রতি দয়া কর যেমনভাবে তারা আমাকে শৈশবে লালন পালন করেছেন।’ তোমার প্রতিপালক খুব ভাল করেই জানেন তোমাদের অন্তরে কী আছে। তোমরা যদি সৎ কর্মশীল হও, তবে যারা বার বার তাঁর দিকে ফিরে আসে তিনি তো তাদের প্রতি পরম ক্ষমাশীল।” [সূরা বানী ইসরাইল ২৩-২৫]

কাজেই, আপনার মা-বাবা কে ভালবাসুন।

 


'আপনিও হোন ইসলামের প্রচারক'
প্রবন্ধের লেখা অপরিবর্তন রেখে এবং উৎস উল্লেখ্য করে
আপনি Facebook, Twitter, ব্লগ, আপনার বন্ধুদের Email Address সহ অন্য Social Networking ওয়েবসাইটে শেয়ার করতে পারেন, মানবতার মুক্তির লক্ষ্যে ইসলামের আলো ছড়িয়ে দিন। "কেউ হেদায়েতের দিকে আহবান করলে যতজন তার অনুসরণ করবে প্রত্যেকের সমান সওয়াবের অধিকারী সে হবে, তবে যারা অনুসরণ করেছে তাদের সওয়াবে কোন কমতি হবেনা" [সহীহ্ মুসলিম: ২৬৭৪]

আরও পড়তে পারেন

পিতা-মাতার সাথে সদ্ব্যবহার

Download article as PDF প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না রহমান রহীম আল্লাহ্‌ তায়ালার …

যেভাবে একজন হাজী তার সন্তানদের উপদেশ দেবে

Download article as PDF প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না রহমান রহীম আল্লাহ্‌ তায়ালার …

পাঠকের মন্তব্য

Loading Facebook Comments ...

আপনার মন্তব্য লিখুন