চলতি সপ্তাহে ফিলিস্তিনের ভূখ- লক্ষ্য করে ইসরাইল বিমান হামলা চালাতে শুরু করলে কমপক্ষে ছয়শ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। গাঁজা, বেইত হানউন ও খান ইউনুসসহ ফিলিস্তিনের কমপক্ষে সাড়ে পাঁচশ’টি স্থানে ইসরাইলি যুদ্ধ বিমান হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ। গত বৃহস্পতিবার ইসরাইলি বিমান হামলায় ৮০ ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন।

নিহতদের মধ্যে ৫ জন শিশুও রয়েছে। তিন দিন ধরে শুরু হওয়া সহিংসতার কোনো একক হামলায় নিহতের সংখ্যা এটাই সর্বোচ্চ বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। খান ইউনুসের কাছে ঘন জনবসতিপূর্ণ এলাকার দুইটি বাড়ির উপর ইসরাইলি বিমান বোমা হামলা চালানোর সময় বাড়ির বাসিন্দারা ঘুমিয়ে ছিল বলে স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানিয়েছে। বিমান হামলার এক পর্যায়ে ইসরাইলি সেনাবাহিনী ফিলিস্তিনিদের বিভিন্ন সন্দেহজনক স্থানে স্থল হামলা শুরু করতে পারে বলে আশঙ্কা ছড়িয়ে পড়ছে।

হামলা ও পাল্টা হামলাকে কেন্দ্র করে  ফিলিস্তিন ও ইসরাইলের মধ্যে উত্তেজনা আশঙ্কাজনকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মনু গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। গত সোমবার থেকে গাজাভিত্তিক ইসলামী সংগঠন হামাস ইসরাইলের ভূখ- লক্ষ্য করে দুইশরও বেশি রকেট নিক্ষেপ করেছে বলে অভিযোগ করেছে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ। এর জবাবে ইসরাইলি বিমান থেকে ফিলিস্তিনের অসংখ্য লক্ষ্যস্থলে বেশুমার হামলা চালানো হচ্ছে। এদিকে, ইসরাইলের মন্ত্রিপরিষদ গাঁজা সীমান্তে অতিরিক্ত ৪০ হাজার সেনা মোতায়েনের অনুমোদন দেওয়ার পর ওই এলাকায় নজরদারি অব্যাহত রেখেছে ইসরাইলি ট্যাংক।

ইসরাইলের পরবর্তী পদক্ষেপ স্থল হামলা হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন গাঁজার বাসিন্দারা। ইসরাইলের চালানো হামলায় আহতদের চিকিৎসা দেয়া নিয়ে উদ্বিগ্ন গাঁজার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। হামলার শিকার ফিলিস্তিনিদের নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়া ও আহতদের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে রাফাহ সীমান্ত এলাকা খুলে দিয়েছে মিসর। ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের পাল্টাপাল্টি হামলায় উদ্বেগ প্রকাশ করে এই হামলাকে ভয়াবহ বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন। আরেকটি পূর্ণ মাত্রার যুদ্ধ চালানোর সামর্থ্য ইসরাইল-ফিলিস্তিন অঞ্চলের নেই হুঁশিয়ার করে এই বিরোধের অবসানের আহ্বান জানান মুন।

গাঁজায় ইসরাইলের বিমান হামলার জের ধরে বুধবার রাতে ইসরাইলের বিভিন্ন শহরে হামাস রকেট হামলা চালিয়েছে ইসরাইলের পক্ষ থেকে এমন অভিযোগের পরেই এই মন্তব্য করেছেন মুন। ইসরাইল-ফিলিস্তিন সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ার আগেই তার রাশ টেনে ধরা উচিত বলেও মন্তব্য করেছেন মুন। ফিলিস্তিন-ইসরাইল সঙ্কট বিষয়ে বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ইসরাইলের তিন কিশোর অপহরণের হত্যার প্রতিশোধে এক ফিলিস্তিনি কিশোরকে অপহরণ করে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার ঘটনার জের ধরে সহিংসতায় জড়িয়ে পড়েছে দেশ দুইটি।

রয়টার্স, বিবিসি, এএফপি, ওয়েবসাইট।

Pictures:

 

 

 

হে আল্লাহ আমাদের ভাই-বোনদের কুরবানি কবুল করুন । হে আল্লাহ, আমাদের মজলুম ভাই-বোনদের কষ্টকে সহজ করে দিন । হে আল্লাহ আমাদের মজলুম ভাই-বোনদেরকে ধৈর্য্য ধরার তৌফিক দান করুন। হে আল্লাহ মুসলিম উম্মাহকে এক হওয়ার তৌফিক দান করুন । হে আল্লাহ মুসলিম উম্মাহের উপর জয় সুনিশ্চিত করে দিন।” আমিন