লিখেছেনঃ মেরিনার       ওয়েব সম্পাদনাঃ মোঃ মাহমুদ ইবন গাফফার

18

হে নাস্তিক! আমি তো তোমার কাছে, ঈশ্বর প্রমাণ করতে চাই নি!!

তবে কেন তুমি গায়ে পড়ে আমার সাথে, ঝগড়া কর, তর্ক জুড়ে দাও?

মানব জীবন কেমন হবার কথা – আমি কি তোমার কাছে জানতে চেয়েছি?

তবে কেন তুমি তোমার জীবনের, অর্থহীনতা দিয়ে, আমার জীবনকে অর্থবহ করে তুলতে চাও?

তুমি থাকোনা তোমার “অর্থহীন প্যাঁচাল” নিয়ে – কষ্ট করে চয়ন করা দুর্বোধ্য শব্দে, ইনিয়ে বিনিয়ে নারীর

দেহ সৌষ্ঠবের বর্ণনা, অথবা, যৌনতার শরীরী প্রকাশ বা প্রেম ভিক্ষা নিয়ে ৷

হে বস্তুবাদী “কমরেড”! তুমি, তোমার অধুনা-লুপ্ত, ঈশ্বরবিহীন ধর্মের জাবর কাটতে চাও?

তা বেশ তো, আমি কি তোমায় বারণ করেছি?

তুমি তোমার ধর্মের – মৃত হাড়গোড় হয়ে যাওয়া – পয়গাম্বরদের গুণগান গাইতে চাও? দেং, কিম, চে,

লেনিন, স্ট্যালিন কিংবা মাও?

তা কর না, আমার তাতে তো কোন ক্ষতি হবার নয় ৷ আমি তো দেখেছি কিভাবে নিজ ধর্মে বিশ্বাস হারিয়ে

-এদেশী কমরেডরা হালুয়া রুটির উচ্ছিষ্টের ভাগ পেতে, স্বৈরাচারের সাথে হামাগুড়ির প্রতিযোগিতায়

প্রাণাতিপাত করে, ক্ষমতার ডাস্টবিনে পৌঁছাতে – অকপটে কোলাকুলি করে বিশ্ব বেহায়ার সাথে! 

তবে কি তুমি সেই বরফ শীতল অন্ধকারের, নিঃসঙ্গ সম্ভাবনাকে ভয় পাও?

আমাকেও করে নিতে চাও তোমার সাথী- জাহান্নামের অতল গহ্বরে!

তুমি কি তবে সৃষ্টির গূঢ় রহস্য জেনে গেছো? জেনেছো: মহাবিশ্বের সবকিছু কেবলই মরে যাচ্ছে?

তোমার “গুরুদেব” যেমন বুঝেছিলেন, সকলই: আলো হাতে চলিয়াছে আঁধারের যাত্রী” !

(বেশ আগে, এই ব্লগে বা অন্যত্রও প্রকাশিত। আজ এক self proclaimed নাস্তিকের একটা কবিতা দেখে ইচ্ছা হলো পোস্টটা আবার প্রকাশ করি।)