সূত্রঃ রয়টার্স, ইরনা, আমারদেশ

তিউনিশিয়ায় ইসলামী রাষ্ট্রব্যবস্থার দাবিতে রোববার রাজধানী তিউনিসে হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভ করেন। বিক্ষোভকারীরা তিউনিশিয়াকে ইসলামী প্রজাতন্ত্র ঘোষণা করে ইসলামী শিক্ষার ভিত্তিতে সংবিধান প্রণয়নের দাবি জানান। বিক্ষোভে অন্তত ১০ হাজার মানুষ অংশগ্রহণ করেছেন বলে বিভিন্ন বার্তা সংস্থা খবর দিয়েছে।

তিউনিশিয়ায় ২০১১ সালের জানুয়ারি মাসে প্রবল গণঅত্যুত্থানে সাবেক সেক্যুলার স্বৈরশাসক জয়নুল আবেদিন বেন আলির পতন ঘটে। বেন আলির প্রায় তিন দশকের শাসনামলে তিউনিশিয়ার ইসলামপ্রিয় জনগণ স্বাধীনভাবে ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান পালন করতে পারতেন না। কাজেই ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা তার সেক্যুলার শাসনব্যবস্থার বিরুদ্ধে গণআন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়েন।

আজকের বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীরা ‘জনগণ ইসলামী রাষ্ট্র চায়’, ‘জনগণ শরীয়াভিত্তিক আইন চায়’ বলে স্লেম্লাগান দেন। বিক্ষোভকারীরা তিউনিশিয়ায় সামপ্রতিক পবিত্র কোরআন অবমাননারও তীব্র নিন্দা জানান। গত সপ্তাহে তিউনিশিয়ার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় শহর বেন গুয়েরদানের একটি মসজিদে কয়েকটি কোরআনের কপি ছেঁড়া অবস্থায় পাওয়া যায়। এছাড়া মসজিদটির দেয়ালে দুর্বৃত্তদের নিক্ষিপ্ত ডিম দেখতে পাওয়া যায়।

 

http://www.amardeshonline.com/pages/details/2012/03/27/138040

http://www.tunisia-live.net/2012/03/15/islamic-tunisian-associations-organize-protest-calling-for-sharia-law/

http://www.euronews.com/2012/03/16/tunisian-protesters-call-for-sharia-law/

http://www.alarabiya.net/articles/2012/03/17/201161.html