Tanvir receiving award from Sheikh Sudais and Religion Minister of Saudi Arabia

সৌদি আরবের মক্কায় কাবাঘর কনফারেন্সের মসজিদে হারামে অনুষ্ঠিত ৭৩টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের হাফেজ তানভীর হোসেন প্রথম স্থান অধিকার করে বিজয়ের মাসে বিরল কৃতিত্ব অর্জন করেছে। ৯ ডিসেম্বর তার হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন সৌদি ধর্মমন্ত্রী সালেহ বিন আবদুল আজিজ বিন মোহাম্মদ আলী শেখ। এ সময় মক্কার কেন্দ্রীয় ইমাম আবদুর রহমান আস সুদাইস উপস্থিত ছিলেন।

পুরস্কার হিসেবে তানভীর হোসেনকে আন্তর্জাতিক স্মারক সার্টিফিকেট ও বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ২২ লাখ টাকা নগদ অর্থ দেয়া হয়।

বাংলাদেশী প্রতিবন্ধী তরুণের এমন কৃতিত্বে ভূয়সী প্রশংসা করে সৌদি ধর্মমন্ত্রী বলেন, ‘৩৪ বছরের মধ্যে এবারই প্রথম কোনো দেশ তিনটি বিভাগেই প্রথম স্থান অধিকার করে। যার মধ্যে একজন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীও রয়েছে।’ তিনি ভবিষ্যতে বাংলাদেশকে কোরআন শিক্ষায় সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশ্বাস দেন।

জানা গেছে, নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের সাতবাড়িয়া গ্রামের ইলিয়াস হোসেনের ছেলে তানভীর হোসেন। সে জন্মান্ধ। এর আগে তানভীর একাধিকবার বাংলাদেশ জাতীয় কোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে। এছাড়াও সে বাংলাভিশন-পিএইচপি কোরআন প্রতিযোগিতায় ২০১১ সালে দ্বিতীয় এবং একই বছর হুফ–াজুল কোরআন ফাউন্ডেশনে পূর্ণ কোরআনে প্রথম স্থান লাভ করে। সে যাত্রাবাড়ীর মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল ক্যাডেট মাদরাসার প্রিন্সিপাল নেছার আহমেদ আন নাছিরির কাছে শিক্ষা লাভ করে।

এ ব্যাপারে আমার দেশ কার্যালয়ে কথা হয় মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনালের প্রিন্সিপাল হাফেজ নেছার আহমেদ আন নাছিরির সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘আমি গর্বিত এ জন্য যে, তিনজনের মধ্যে দু’জনই আমার মাদরাসার ছাত্র। আরও বেশি গর্বিত, প্রথম স্থান অধিকারী তিনজনই বাংলাদেশী।’

কোরআন প্রতিযোগিতায় বিশ্বজয় করে তার এই খুশির খবর জানাতে গতকাল তিনি আমার দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের সঙ্গে দেখা করেন। মাহমুদুর রহমান তার এই পুরস্কারপ্রাপ্তিতে উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন।

উল্লেখ্য, নেছার আহমেদ আন নাছিরি পরিচালিত ঢাকার যাত্রাবাড়ীর মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল ক্যাডেট মাদরাসার তানভীর হোসেন ও সাদ শুরাইল এবং উত্তরার তানজিবুল উম্মার আহসান উদ্দিন নোমান এ পুরস্কার অর্জন করে। এছাড়া গত রমজানে আলজেরিয়ার রাজধানী আলজিয়ার্সে অনুষ্ঠিত বিশ্ব কোরআন প্রতিযোগিতায় মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনালের ছাত্র হাফেজ মহিউদ্দিন প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে।

সূত্রঃ আমার দেশ